সকাল ১০:০২ | ২১ জুন, ২০২১ | ৭ আষাঢ়, ১৪২৮ | ১০ জিলকদ, ১৪৪২

কানাডা সরকার ঘোষিত ১৩টি সন্ত্রাসবাদী গোষ্ঠীর তালিকায় ‘দায়েস বাংলাদেশ’

আনোয়ার হোসেন মন্ডল

প্রধান বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ১০:৩২ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২১
শেয়ার করুন

কানাডা সরকারের চোখে সারা বিশ্বে সক্রিয় সন্ত্রাসী চরমপন্থী গোষ্ঠীর তালিকায় ’ইসলামিক স্টেট- বাংলাদেশ’ নামে একটি সংগঠনের নাম উঠে এসেছে।

Advertise

কানাডার পাবলিক সেফটি মন্ত্রণালয় বুধবার তাদের সন্ত্রাসী সংগঠনের তালিকা হালনাগাদ করে সেখানে নতুন ১৩টি সংগঠনকে অন্তর্ভূক্ত করে। নতুন এই তালিকায় ‘ইসলামিক স্টেট- বাংলাদেশ’ নামে একটি সংগঠনের নাম অন্তর্ভূক্ত হয়েছে। সরকারি ভাষ্যে বলা হয়, এই সংগঠনটির আরো একটি নাম রয়েছে- দায়েস বাংলাদেশ।

Advertise

কানাডা সরকারের তালিকায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মোট ৭৩টি চরমপন্থী সংগঠন সন্ত্রাসী গোষ্ঠী হিসেবে তালিকাভূক্ত আছে। এই প্রথম বাংলাদেশের নাম ব্যবহার করা কোনো সংগঠনকে আনুষ্ঠানিকভাবে সরকারি তালিকায় সন্ত্রাসী গোষ্ঠী হিসেবে তাালিকাভূক্ত করা হলো।
কানাডা সরকারের ভাষ্য অনুসারে ২০১৪ সালে গঠিত এই সংগঠনটি বাংলাদেশের তাদের অনুসরাীদের সে দেশের রাজনীতিবিদ, সংসদ সদস্য, আইন শৃংখলা রক্ষী বাহিনীর সদস্য এমন কি অমুসলিমদের উপর হামলার উৎসাহ দিয়েছে।

Advertise

পাবলিক সেফটি বিভাগের ভাষ্য অনুসারে,২০১৪ সালের আগষ্ট মাসে আইএস প্রধান আবু বকর বাগদাদির নেতৃত্বের প্রতি অনুগত্য প্রকাশ করে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূতদের একটি গ্রেুপ ‘বেঙ্গলি মুসলিম’ গঠনের লক্ষ্য নিয়ে এই সংগঠন প্রতিষ্ঠা করে। ২০১৬ সালে ঢাকার হলি আর্টিজান রেস্টুরেন্টে হামলার পরিকল্পনাকারী দুইজনের একজন এই গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা বলে মনে করা হয়।

বিবিসির বরাতে জানা যায়, ঢাকার কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের উপ কমিশনার সাইফুল ইসলাম জানান, ইসলামিক স্টেট বাংলাদেশ নামে বাংলাদেশে কোন সন্ত্রাসী গোষ্ঠী নেই।এজন্য কানাডার ওই তালিকার সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি।

মি. ইসলাম বলেন, “ইসলামিক স্টেট বাংলাদেশ নামে বাংলাদেশে কোন সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর অস্তিত্ব আমাদের জানামতে নেই। কানাডার ওই তথ্যে সমস্যা আছে বলে আমার মনে হয়।”

কানাডার ওই তালিকায় আইএস সংশ্লিষ্ট অন্যান্য গ্রুপগুলো হলো: ইসলামিক স্টেট ইস্ট আফ্রিকা প্রভিন্স, ইসলামিক স্টেট ইন গ্রেটার সাহারা, ইসলামিক স্টেট ইন লিবিয়া, ইসলামিক স্টেট ইন ইস্ট এশিয়া।

তালিকায় তিনটি আল-কায়েদার সহযোগী গোষ্ঠীর নামও স্থান পেয়েছে। সেগুলো হলো, জামা’আত নুসরাত আল-ইসলাম ওয়াল-মুসলিমিন, ফ্রন্তে লিবারেশন ডু মেসিনা, এবং আনসার ডাইন।

এছাড়া চারটি গ্রুপ আছে যারা আদর্শিকভাবে হিংস্র চরমপন্থী। এর হল, অ্যাটম ওয়াফেন ডিভিশন, বেইস, দ্য প্রাউড বয়েজ এবং রাশিয়ান ইম্পেরিয়াল মুভমেন্ট।

এছাড়া ভারতের শাসিত কাশ্মীর এবং পাকিস্তানের সক্রিয় সন্ত্রাসীগোষ্ঠী হিজবুল মুজাহিদিনের নামও তালিকায় উঠে এসেছে। সূত্র: বিবিসি,নতুন দেশ

Advertise

এই বিভাগের সর্বশেষ