সকাল ১১:৩৪ | ১৫ মে, ২০২১ | ১ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ | ২ শাওয়াল, ১৪৪২

‘আমেরিকায় রপ্তানি হবে রাজশাহীর ড্রোন’- জুনাইদ আহমেদ পলক

আশিক ইসলাম

রাবি প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৬:৫৭ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৯, ২০১৯
শেয়ার করুন

‘রাজশাহীতে ৩১ একর জায়গা জুড়ে প্রায় তিনশত কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ কাজ চলছে বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্কের। সেখানে একটি প্লান্ট স্থাপনের জন্য আবেদন করা হয়েছে। রাজশাহীর মাটিতে ভবিষ্যতে তৈরি হবে ড্রোন এবং তা আমেরিকার মার্কেটে রপ্তানি করা হবে।’
বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় নগরীর তালাইমারি এলাকায় অবস্থিত বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স ও ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের আয়োজনে ‘টেক ফেস্ট-২০১৯’ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেছেন বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি।

Advertise

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশে এখন দশটি স্মার্ট ফোন এসেমলিং প্লান্ট স্থাপন করা হয়েছে। এছাড়াও ল্যাপটপ এসেমলিং প্লান্ট, ইন্টারনেট থিংকস, ডেটা সফ্ট, হাইটেক পার্ক, হাইটেক প্লান্ট স্থাপিত হয়েছে।

Advertise

প্রতিমন্ত্রী পলক আরও বলেন, এখন বাংলাদেশে ৯৫ শতাংশ ঘরে বিদ্যুৎ, ১০ কোটি মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করে, ১৬ কোটি মানুষের কাছে মোবাইল সিমকার্ড আছে, ১০ কোটি মানুষ মোবাইল ফোন ব্যবহার করে। জাতিসংঘের নিবন্ধিত ১৯৩টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ বিশ্বের পাঁচটি সবচেয়ে দ্রুততম অগ্রসরমান অর্থনীতি দেশ। বাংলাদেশে জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার আট শতাংশ অতিক্রম করেছে এবং বাংলাদেশে জিডিপি তিনশত মিলিয়ন ডলারে পৌঁছেছে। বিশ্বের ওয়ার্ল্ড ব্যাংক, ওয়ার্ল্ড ফোরাম তারা বলছে ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশের অর্থনীতি হবে পাঁচশত বিলিয়ন ডলার। এইভাবে শেখ হাসিনা সরকার একটি প্রযুক্তি নির্ভর, জ্ঞান ভিত্তিক অর্থনীতির বাংলাদেশ গড়ে তুলছেন।

Advertise

কম্পিউটার সায়েন্স ও ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. আলী মামুনের সভাপতিত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ওসমান গণি তালুকদার বলেন, দেশকে প্রযুক্তি নির্ভর করে তুলতে প্রধানন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। বর্তমান বিশ্বকে তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর বিশ্ব বলা যায়। বিশ্ববে তথ্য প্রযুক্তিগত ভাবে এগিয়ে নিতে বাংলাদেশের অবদান কম নয়। আজ থেকে শতাধিক বছর আগে স্যার জগদিশ চন্দ্র বসু তথ্য প্রযুক্তির মূল ভিত্তি স্থাপন করেছিলেন। তিনিই প্রথম শব্দকে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে পাঠানোর যন্ত্র আবিষ্কার করেছিলেন। বর্তমানে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে কথোপোকথন করছি এখানে তাঁর অবদান রয়েছে। জ্ঞানই শক্তি এখন শুধু জ্ঞনই নয় তথ্যও একটি অন্যতম শক্তি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি মোতাবেক ২০২১ সালের মধ্যেই দেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশে রুপান্তর করবে। ইতিমধ্যে আমরা সেই ডিজিটালের ছোঁয়া পেতে শুরু করেছি।

বিভাগের প্রভাষক উম্মে রোমান চৈতির সঞ্চালনায় আরও উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ও ব্রিটেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রদূত অধ্যাপক ড. সাইদুর রহমান, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সদস্য অধ্যাপক সাজ্জাদুর রহমান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ও বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক খাদেমুল ইসলাম, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শতাধিক শিক্ষার্থীরা।
এর আগে বেলা ১১টায় পতাকা উত্তোলন, বেলুন ফেস্টুন উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন প্রতিমন্ত্রী পলক। এরপর বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অর্থায়নে নির্মিত ‘মোবাইল গেইম এণ্ড এ্যাপস টেস্টিং ল্যাব’ উদ্বোধন করেন।

Advertise

এই বিভাগের সর্বশেষ